বুধবার | ১৪ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১লা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

A National Daily In Bangladesh

হানিমুনে গিয়ে সমুদ্রসৈকত পরিষ্কারে নামলেন নবদম্পতি

হানিমুনে গিয়ে সমুদ্রসৈকত পরিষ্কারে নামলেন নবদম্পতি

কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে এক নবদম্পতি হানিমুনে গিয়ে সৈকতের আবর্জনা পরিষ্কারে নেমেছেন। কাজটি করলেন বিয়ের পোশাকে, যাতে করে মানুষের নজরে আসেন এবং অন্যরা পরিবেশ পরিষ্কার রাখতে উদ্বুদ্ধ হন।

সদ্য বিয়ের পর সমুদ্রবিলাসে যাবার সিদ্ধান্ত নেন মো. তারেক আজিজ ও জান্নাতুল বাকেয়া মিলি দম্পতি। সঙ্গে বিয়ের পোশাক। তবে এ এক ভিন্ন বিলাস, যেখানে নিজেদের ভালোবাসা তারা ভাগ বাটোয়ারা করেন প্রকৃতির সঙ্গে। অন্য মানুষের ফেলে যাওয়া আবর্জনা পরিষ্কারে নেমে পড়েন কক্সবাজারের সৈকতে।

বিয়ের রাতে যখন নবদম্পতি ভবিষ্যত সুখি জীবনের গল্প সাজাতে ব্যস্ত থাকেন, তখনই এমন একটি উদ্যোগ নেবার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন তারেক-মিলি দম্পতি। গেল ৩ আগস্ট বিয়ে হয় ২৮ বছর বয়সী তারেক ও ২০ বছর বয়সী মিলির। আর ৫ আগস্ট সমুদ্র সৈকতের পরিচ্ছন্নতা অভিযানে নামেন তারা।
তারেক বলেন, ‘চারদিন ছিলাম। প্রতিদিনই বিচে ময়লা-আবর্জনা পরিষ্কার করে সেখানে কর্তৃপক্ষের দেয়া নির্ধারিত ডাস্টবিনে ফেলেছি। এমন চার পাঁচ বস্তা ময়লা সংগ্রহ করেছি।’

কাজের ফাঁকে ‘ক্লিন ওয়ার্ল্ড, গ্রিন ওয়ার্ল্ড’ প্ল্যাকার্ড নিয়ে ছবি তোলেন তারেক ও মিলি। মূল লক্ষ্য ছিল সচেতনতা তৈরি।

‘আমি মূলত সবাইকে সচেতন করতে চেয়েছি। সেই উদ্দেশ্যেই এই কাজ করা,’- বলেন তারেক।

স্বামী-স্ত্রী দুজনই সমাজসেবার কাজ করেছেন আগেও। নানান সেবামূলক সংগঠনের সঙ্গে ছিলেন যুক্ত। করোনার লকডাউনের সময় মানুষকে খাবার পৌঁছৈ দিয়েছেন। পৃথিবীটা আগের মতো সুন্দর হোক, পরিষ্কার থাকুক, এতটুকুই চাওয়া তাদের।

Facebook Comments

Posted ৩:১২ অপরাহ্ণ | রবিবার, ২৩ আগস্ট ২০২০

dailymatrivumi.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০  
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক
মোহাম্মদ নুরুজ্জামান মুন্না
প্রকাশক ও ব্যবস্থাপনা সম্পাদক
মশি শ্রাবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়

রূপায়ন করিম টাওয়ার, ৮০ কাকরাইল, ভিআইপি রোড, রমনা ঢাকা।
ফোন : ০২৪৮৩২২৮৮০
email : matrivumi@gmail.com

মিরর মাল্টি মিডিয়া প্রডাকশন লি: এর পক্ষে প্রকাশক মশি শ্রাবন কর্তৃক বি.এস.প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়েনবী সার্কুলার রোড (মামুন ম্যানশন, গ্রাউন্ড ফ্লোর), থানা-ওয়ারী, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত।